Loading...

Blog head ads

অজানা সেন্টিনেল দ্বীপ যা মানুষের জন্য সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ । Unknown North Sentinel Island

সেন্টিনেল দ্বীপ, North Sentinel Island

ভারতের আন্দামান-নিকোবরের অধীনে উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপ (North Sentinel Island) যাতে মাত্র ৪০০ মানুষের বাস। তারা এখনো জানেনা আগুনের ব্যবহার এমনকি চাষাবাদ। তাদের কাছে এখনো পৌঁছায়নি আধুনিকতার ছোঁয়া আর সেইসাথে তাদের সম্পর্কে কিছুই জানেনা কেউ। 

ভারতের রাজধানী পোর্ট ব্লেয়ার থেকে মাত্র 50 কিলোমিটার দূরে অবস্থিত এই দ্বীপ, তবুও এই দ্বীপে পৌঁছাতে পারেনি আধুনিক সমাজের ছোঁয়া আর সেইসাথে ওই দ্বীপের মানুষও বাইরের জগতের কারো নাক গলানো মোটেও সহ্য করে না। নৌকা ও হেলিকপ্টার থেকে বছরের পর বছর নজর রেখেও তাদের সম্পর্কে একেবারে অল্প ধারণা করতে পেরেছেন নৃতত্ত্ববিদরা।

বিশ্বের অন্য যেসব উপজাতি রয়েছে তাদের থেকে সম্পূর্ণ আলাদা সেন্টিনেলরা। 

সেন্টিনেলরা একজন আরেকজনের সঙ্গে যে ভাষায় কথা বলে তা তাদের সবচেয়ে কাছের উপজাতির পক্ষেও বোঝা অসম্ভব। মনে করা হয় আদিম এই মানুষেরা আফ্রিকা থেকে এসেছিলেন এই দ্বীপে। বিশেষজ্ঞদের মতে এটাই সম্ভবত বিশ্বের শেষ উপজাতির আবাসস্থল, যাদের কাছে পৌঁছাতে পারেনি আধুনিক সমাজ। এখানকার বাসিন্দাদের জীবনযাত্রা কেমন তাও জানেনা কেউ। দ্বীপটিতে প্রবেশের অনুমতি নেই কারোও কিন্তু ধরণা করা হয় প্রায় ৬০ হাজার বছর পূর্ব থেকে তারা এইখানে বসবাস করছে। 

১৮৮০ সালে ব্রিটিশ নৃতত্ত্ববিদ এম. ভি পোর্টম্যান (Maurice Vidal Portman) এর নেতৃত্বে একটি দল ওই দ্বীপে যান। সেই দলটি তাদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ যোগাযোগ স্থাপনের বদলে তারা উপজাতিদের এক বয়স্ক দম্পতি এবং চার শিশুকে নিয়ে আসেন আধুনিক সমাজের সঙ্গে তাদের পরিচয় করানোর জন্য কিন্তু আধুনিক সমাজে খাপ খাওয়াতে না পেরে রোগে আক্রান্ত হয়ে কয়েক মাসের মধ্যেই মারা যান তারা আর এ ঘটনার পর আধুনিক সমাজের প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন সেন্টিনেলরা। 

১৯৬৭ সাল থেকে ভারত সরকার যোগাযোগ স্থাপনের চেষ্টা শুরু করে। ভারতীয় নৃতত্ত্ববিদ ত্রিলোকনাথ পন্ডিত (Triloknath Pandit) প্রথমবারের মতো ১৯৯১ সালের ৪ জানুয়ারী দ্বীপটিতে গিয়ে সেন্টিনেলদের সাথে বন্ধুত্বপূর্ণ যোগাযোগ স্থাপনে সক্ষম হন কিন্তু সেই চেষ্টা পুরোপুরি সফল হয়নি কারণ এই চেষ্টার পরেও উপজাতিরা বাইরের মানুষকে তাদের রাজ্যে প্রবেশের অনুমতি দেয়নি বরং প্রতিবার তাদের আক্রমণের শিকার হতে হয়েছে, মৃত্যুও হয়েছে অনেকের। এরপর ২০০৪ সালের সুনামির পর হেলিকপ্টার দিয়ে তাদের জন্য ত্রাণ নিয়ে যায় ভারত সরকার, তখন জঙ্গল থেকে বেরিয়ে এসে আক্রমণ চালায় তারা অবশেষে তাদেরকে বিরক্ত না করার সিদ্ধান্ত নেয় কর্তৃপক্ষ। শেষমেষ উত্তর সেন্টিনেল দ্বীপ এবং এর চারপাশের নটিক্যালমাইল পর্যন্ত সীমানা নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। 

আমাদের আজকের আয়োজন আপনার কেমন লাগলো তা আমাদের অবশ্যই জানাবেন আর পোষ্টটি ভালো লাগলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না, ধন্যবাদ।

No comments:

Powered by Blogger.